কালিকাপুর হবে তারুণ্য নির্ভর উন্নত ও ডিজিটাল ইউনিয়ন – নৌকার মাঝি সালমা জাহান

  • কালিকাপুর হবে তারুণ্য নির্ভর উন্নত, সমৃদ্ধ ও ডিজিটাল ইউনিয়ন❞ 

নিজস্ব প্রতিবেদক :

আগামী ১৫ই জুন অনুষ্ঠিত হবে ৭ং কালিকাপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ২০২২। আসন্ন কালিকাপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেয়ে নৌকার হাল ধরেছেন পটুয়াখালী জেলা কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য সালমা জাহান।

উৎসব-মুখর নির্বাচনী আবহাওয়ায় প্রচার-প্রচারনায় ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। পথ-ঘাট-প্রান্তর ঘুরে ঘুরে সকলের কাছে গিয়ে স্মরণ করিয়ে দিয়ে আসছেন বর্তমান সরকারের উন্নয়নের কথা।

নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রচার ও প্রচারণার সময়ে মানুষের পূর্ণ সমর্থন ও ভালোবাসায় সিক্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী সালমা জাহান।

বিডি কোস্টাল নিউজ এর সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি বলেন, পটুয়াখালী এখন আর সমৃদ্ধের পথে নয়, বর্তমানে পটুয়াখালী সমৃদ্ধ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই উন্নয়ন ও অগ্রগতির কথা মানুষ আজীবন মনে রাখবে। ভোট চাইতে গিয়ে সাধারণ মানুষের মুখে সেই উচ্ছ্বাস দেখে তা বুঝেছি।

বড় বিঘাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ সিরাজ মাস্টারের মেয়ে, কালিকাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মরহুম খালেক খানের পুত্রবধূ ও সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান,জেলা যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক,জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মিজানুর রহমান মনির এর সহধর্মিণী কালিকাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী সালমা জাহান। পারিবারিকভাবে পূর্ব থেকেই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। যেকোন সমস্যায় মানুষের পাশে থেকেছেন, মানুষের জন্য কাজ করে মানুষের পূর্ণ সমর্থন ও ভালোবাসা কুড়িয়েছেন তিনি।

ইউনিয়নবাসীদের সঙ্গে কথা বলতে গেলে তারা বিডি কোস্টাল নিউজ’কে বলেন, সালমা জাহান এই ইউনিয়নের যোগ্য প্রার্থী। সাধারণ মানুষের জীবনমান উন্নয়নে, মানুষের সুখে-দুঃখে সবসময় তিনি আমাদের পাশে ছিলেন। সালমা জাহানকে নৌকার প্রার্থী মনোনীত করায় আমরা সবাই অনেক খুশি। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই।

নির্বাচন নিয়ে কথা বলার সময় কালিকাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী সালমা জাহান বলেন,কালিকাপুর হবে তারুণ্য নির্ভর উন্নত, সমৃদ্ধ ও ডিজিটাল ইউনিয়ন। সমৃদ্ধ কালিকাপুর তৈরীর লক্ষ্যে সর্বদা কাজ করে যাবো। আমার ইউনিয়নের রাস্তা-ঘাট, স্কুল-মাদ্রাসা সহ অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও মানুষের জীবনমান উন্নয়নের মধ্যে দিয়ে আমার এই ইউনিয়নকে সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলবো। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেই দায়িত্ব আমার উপর বিশ্বাস ও ভরসা রেখে অর্পণ করেছেন সেই দায়িত্ব আমি আমার সর্বোচ্চটা দিয়ে পালন করার চেষ্টা করবো। আমার বিশ্বাস জনগন এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আগামী ১৫ জুন, ২০২২ (বুধবার) নৌকার হাল ধরবেন।