উজিরপুরে বর্ণাঢ্য আনন্দ উৎসবে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

উজিরপুর প্রতিনিধি : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া ঐতিহ্যবাহী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বরিশালের উজিরপুর উপজেলায় আজ ৪ঠা জানুয়ারি মঙ্গলবার বর্ণাঢ্য আনন্দ উৎসবের মধ্যে দিয়ে উদযাপন করা হয়।

দেশভাগের পর ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক মুসলিম হলে সংগঠনটির পথচলা শুরু হয়। সেই থেকে বাংলাদেশের জনগণের অধিকার আদায়ে বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলন ও সংগ্রামে বলিষ্ঠ নেতৃত্ব প্রদানসহ দিকনির্দেশনা দিয়ে আসছে ঐতিহ্যবাহী এই ছাত্রসংগঠনটি।
প্রতিষ্ঠাকালে সংগঠনটির নাম ছিল ‘পূর্ব পাকিস্তান মুসলিম ছাত্রলীগ’। পাকিস্তান আমলে ‘মুসলিম’ শব্দটি বাদ দেওয়া হয়। স্বাধীনতার পর নাম হয় ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগ’। সংগঠনটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন, ১৯৬৬ সালের ছয় দফা, ১৯৬৯-এর গণঅভ্যুত্থান, ১৯৭১-এর স্বাধীনতা যুদ্ধ আর নব্বইয়ের স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে।

সকাল সাড়ে ৭টায় উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে জাতীয় ও ছাত্রলীগের পতাকা উত্তোলন, সকাল ৮টায় উপজেলা ছাত্রলীগের আনন্দ শোভাযাত্রা ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি এবং শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ, সকাল ৯ টায় উপজেলা পরিষদের হল রুমে ছাত্রলীগের আলোচনা সভা ও কেক কাটে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর উদ্বোধন করা হয়।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বাবু অসীম ঘরামীর সভাপতিত্বে ও উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাইনুল ইসলাম এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম জামাল হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উজিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আঃ মজিদ সিকদার বাচ্চু, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান অপূর্ব কুমার বাইন রন্টু, প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সফল পৌর মেয়র গিয়াস উদ্দিন বেপারি। এসময়ে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উজিরপুর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর প্যানেল মেয়র মোঃ হেমায়েত উদ্দিন হিমু, উপজেলা আওয়ামী শ্রমিক লীগের যুগ্ম আহবায়ক ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মোঃ রফিকুল ইসলাম শিপন মোল্লা, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি তাপস রায়’সহ উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের নেত্রীবৃন্দ।

এসময়ে উপস্থিত নেত্রীবৃন্দ তাদের বক্তব্য ছাত্রলীগের ইতিহাস ঐতিহ্য ও নানাবিধ কর্মকান্ডের কথা বর্তমান ও ভবিষ্যত প্রজন্মের সামনে তুলে ধরেন। অচিরেই ওর্য়াড ইউনিয়ন এবং উপজেলা পর্যায় ছাত্রলীগের কমিটি করার আহবান জানান, এছাড়াও যোগ্যতা সম্পন্নদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে রাখা জন্য আহবান জানানো হয়, নতুন এই কমিটিতে যেন হয় সন্ত্রাস ও মাদক মুক্ত এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন অতিথিদ্বয়।’