প্রকাশ্যে শ্লীলতাহানি, বিচার চাইতে সন্তান নিয়ে থানায় নারী

ডেস্ক রিপোর্টঃ সম্পত্তির ভাগ, শপিংমলের ভাড়া ও ব্যাংক লোনের কিস্তি পরিশোধ না করে, টাকা আত্মসাৎ করার প্রতিবাদ করায় ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে শপিংমলের সামনে প্রকাশ্যে মারধর করে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে বড় ভাই শাহ আলমের বিরুদ্ধে। রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা মাওনা চৌরাস্তার ইয়াকুব আলী মাস্টার টাওয়ারে সামনে এ ঘটনা ঘটে। নয়া দিগন্ত

ভুক্তভোগী ওই নারী বলেন, স্বামীর মৃত্যুর পর থেকে ভাসুর শাহ আলম সহায় সম্পত্তি থেকে উচ্ছেদ করার পাঁয়তারা করছে। এর আগে বাসার গেটে তালা দিয়ে কয়েকদিন অবরুদ্ধও করে রেখেছিল। পরে পুলিশ ও স্বজনদের সহযোগিতায় সে অবস্থা থেকে মুক্ত হই।

তিনি বলেন, ’রোববার বেলা সাড়ে ১১টার টার সময় স্বামীর প্রতিষ্ঠান ইয়াকুব আলী মাস্টার টাওয়ারের সামনে গেলে অভিযুক্ত শাহ আলম অকথ্য ভাষায় গালাগাল শুরু করেন। তখন এর প্রতিবাদ করতে গেলে আমাকে মারধরসহ শ্লীলতাহানি করে। তখন গাড়ির ড্রাইভার আমির হোসেন আমাকে রক্ষার জন্য এগিয়ে গেলে তাকেও মারধর করে।’ সময় টিভি অনলাইন

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ইয়াকুব আলী মাস্টার টাওয়ারের নিরাপত্তা কর্মী বলেন, ওই নারীর কোন দোষ নেই। কোন কিছু বুঝার আগেই মারধর শুরু করেছে। অভিযুক্ত শাহ আলমের ব্যক্তিগত নাম্বারে একাধিকবার কল করলেও সে ফোন রিসিভ করেননি।

শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক এসআই মো. মনির হোসেন বলেন, জাতীয় জরুরী সেবা নাম্বার ৯৯৯ ফোন পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত যুবক শাহ আলমকে পাওয়া যায়নি।